ধর্ম ও জীবন ৭ নভেম্বর, ২০২০ ০৩:৫৫

ভিয়েনায় হামলার জের

ফ্রান্স বিরোধী আন্দোলন, অষ্ট্রিয়ায় মসজিদ বন্ধের ঘোষণা

ডেস্ক রিপোর্ট

অস্ট্রিয়ায় বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে ‘রেডিক্যাল’ মসজিদ। শুক্রবার অস্ট্রিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এই তথ্য জানানো হয়। মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কার্ল নেহামার এবং ইন্টিগ্রেশন মন্ত্রী সুসান রবাবের সঙ্গে এক সংবাদ সম্মেলনে এই ব্যাপারে আরো বিস্তারিত তথ্য শিগগিরই দেওয়া হবে।  খবর: ডয়চে ভেলে ও বিবিসি।

এই সপ্তাহের শুরুতে দেশটির রাজধানী ভিয়েনায় ভয়াবহ হামলার জেরে জাতীয় নিরাপত্তার হুমকিস্বরূপ একটি মসজিদ বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে। পরবর্তীতে আরো মসজিদ বন্ধের ঘোষণা আসতে পারে। অস্ট্রিয়ার আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃত ইসলামিক ধর্মীয় সম্প্রদায়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনার পর আমরা একটি মসজিদ বন্ধ করে দিচ্ছি। বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, 'ধর্মীয় মতবাদ এবং এর গঠনতন্ত্র' এর নিয়ম ভাঙায় মসজিদটি বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে।

অস্ট্রিয়ায় যারা আইনের শাসনের সুযোগ নিতে চেষ্টা করেন তাদের বিরুদ্ধে এই বন্ধকে (মসজিদ বন্ধ) একটি ‘গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ‘ বলে বর্ণনা করেছেন অস্ট্রিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কার্ল নেহামার। 

গত সোমবার ভিয়েনায় হামলায় চার জনকে হত্যা করে হামলাকারীরা। যা গত কয়েক দশকে দেশটিতে অত্যতম। এই হত্যাকাণ্ডের জন্য যাকে মূলত দায়ী করা হচ্ছে, সেই ২০-বছর বয়সী একজন জিহাদী। এরই মধ্যে তিনি পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন।