খেলাধুলা ২১ নভেম্বর, ২০২০ ০৩:৫০

যে কারণে ক্রিকেট ছেড়ে দিবেন সামি

স্পোর্টস ডেস্ক

দেশের ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মাত্র ২৫ বছরের পাকিস্তানি ওপেনার সামি আসলাম। অভিমান থেকেই ক্রিকেট ছেড়ে পাড়ি জমাচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রে।

২০১৫ সালে টেস্ট অভিষেকের পর ১৩টি টেস্ট খেলেছেন সামি। খেলেছেন ৪টি একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ। টেস্টে দুর্দান্ত ব্যাটিং সামিকে পছন্দের তালিকায় উঠে আসে। কিন্তু অনিয়মিত পারফমেন্সে হারাতে হয় একাদশ। 

২০১৯ সালের কায়েদ ই আজম ট্রফিতে তার ব্যাটে রান এসেছে প্রচুর। সেরা রান সংগ্রাহকদের তালিকায় জায়গা করে নেন। চার সেঞ্চুরি আর ৭৮ গড়ে ৮৬৪ রান করে হয়েছিলেন আসরের চতুর্থ সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক।

সমস্যার সূত্রপাত নর্দার্নের বিপক্ষে একটি ম্যাচে। ম্যাচের চতুর্থ ইনিংসে রান তাড়া করতে নেমে ১১ ওভারে ৮৯ রান দরকার ছিল সাউদার্ন পাঞ্জাবের। তবে ২.৩ ওভার শেষ হতেই ড্র মেনে নেন সাউদার্নের অধিনায়ক সামি আসলাম। ব্যাপারটি মেনে নিতে পারেননি দলের হেড কোচ আবদুল রেহমান। মূলত এ নিয়েই ম্যানেজম্যান্টের সঙ্গে ঝামেলা বাঁধে সামির। এরপর তো নেতৃত্ব থেকেই সরিয়ে দেয়া হয়।
এবছর সামিকে খেলতে হয় বেলুচিস্তানের হয়ে। অন্য সব দলের তুলনায় এই দলটি ছিল বেশ দুর্বল। দলের হয়ে তিন রাউন্ডে মাত্র একটি অর্ধশতক পান সামি।

এত কিছুর পরও সামি দেখছিলেন জাতীয় দলে খেলার স্বপ্ন। তবে নিউজিল্যান্ড সফরের জন্য ৩৫ সদস্যের প্রাথমিক দলে জায়গা না হওয়ায় সামি ধরেই নিয়েছেন আর কখনও জায়গা হবে না। তাই হতাশা থেকেই পাড়ি দিচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রে।