সারাদেশ ২৭ নভেম্বর, ২০২০ ০৯:০৫

বেনাপোল ইমিগ্রেশনে করোনা নেগেটিভ সনদ না থাকায় যাত্রীদের ভোগান্তি

ডেস্ক রিপোর্ট

বেনাপোল ইমিগ্রেশনে করোনা নেগেটিভ সনদ না থাকায় ভারত থেকে ফেরত আসা তিন শতাধিক পাসপোর্টধারী যাত্রীদের ১১ ঘণ্টা আটকে থাকতে হয়েছে হঠাৎ করে সকাল থেকে ভারত ফেরত বাংলাদেশিদের করোনা নেগেটিভ সনদ লাগবে নির্দেশনা দেয় বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) ভোর ৬টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত এসব ভারত ফেরত যাত্রীদের ইমিগ্রেশনে স্বাস্থ্য বিভাগে আটকে থাকতে হয়।

হঠাৎ এমন সিদ্ধান্তে ঘরে ফিরতে না পেরে পরিবার পরিজন নিয়ে ভোগান্তিতে পড়েন যাত্রীরা। এসব যাত্রীদের অধিকাংশই চিকিৎসার জন্য ভারতে গিয়েছিলেন। এবং এর আগে করোনা নেগেটিভ সনদ নিয়ে ব্যবসায়ী মেডিক্যাল ভিসায় বাংলাদেশি যাত্রীদের ভারত ভ্রমণের সুযোগ হয়। আজ থেকে ভারত থেকে ফিরতেও লাগছে করোনা নেগেটিভ সনদ।

আটকেপড়া বাংলাদেশি যাত্রী হোসেন আলী বলেন, আমি আমার চার বছরের অসুস্থ মেয়ের চিকিৎসার জন্য ভারতে গিয়েছিলাম। আজ সকালে দেশে ফেরার জন্য বেনাপোল ইমিগ্রেশনে এলে জানতে পারি করোনা নেগেটিভ সনদ লাগবে। তা না হলে দেশে ফিরতে পারবো না। হঠাৎ এমন সিদ্ধান্তে অসুস্থ মেয়েকে নিয়ে ১০ ঘণ্টা ধরে আটকে থাকতে হয়েছে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব জানান, দেশে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে এর আগে বাংলাদেশ থেকে ভারতে যাওয়ার সময় দেশি-বিদেশি সবার করোনা নেগেটিভ সনদ লাগছিল। এখন দ্বিতীয় ধাপে করোনা সংক্রমণ রোধে ভারত থেকে ফেরার সময়ও ৭২ ঘণ্টার মধ্যে পরীক্ষা করানো নেগেটিভ সনদ লাগবে। আজকে যেহেতু নিয়ম কার্যকর হয়েছে তাই অনেকে জানতে না পেরে সনদ সংগ্রহ করতে পারেনি। এজন্য বিষয়টি ওপর মহলে কথা বলে বিবেচনা করা হয়েছে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন স্বাস্থ্য বিভাগের মেডিক্যাল অফিসার বিচিত্র মল্লিক জানান, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় আজ থেকে ভারত ফেরত বাংলাদেশি বিদেশি সব যাত্রীদের বাংলাদেশে আসতে করোনা নেগেটিভ সনদ প্রয়োজন হচ্ছে। যারা খবর জানতেন না তারা আটকা পড়েছেন। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানো হয়। পরে মানবিক কারণে তাদের ছাড় দেওয়া হয়েছে। আগামীকাল থেকে পুনরায় এটি কার্যকর হবে।