আন্তর্জাতিক ১৯ জানুয়ারি, ২০২১ ১২:৩২

যে কারণে নিরাপত্তার চাদরে মোড়া যুক্তরাষ্ট্র

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে আগামীকাল শপথ নিতে যাচ্ছে জো বাইডেন। এদিকে দেশটির রাজধানীসহ ৫০টি রাজ্যে ট্রাম্প সমর্থকদের সশস্ত্র বিক্ষোভের আশঙ্কায় বাড়তি নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে দেশটিতে।

ঝামেলা এড়াতে ওয়াশিংটনে নিযুক্ত ন্যাশনাল গার্ডের ২৫ হাজার সদস্যের নিরাপত্তা বিষয়ক তথ্য যাচাই বাছাই করে দেখছে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই।

আর্মি সেক্রেটারি রায়ান ম্যাকার্থি বার্তা সংস্থা এপিকে বলেছেন, তিনি এবং অন্যান্য নেতৃবৃন্দ গার্ড সদস্যদের মধ্য থেকে কোনো হুমকির প্রমাণ দেখেননি।

কোনো ধরনের সহিংসতা এড়াতে ওয়াশিংটনের বেশিরভাগ রাস্তা এবং মেট্রো স্টেশনগুলোর পাশাপাশি ন্যাশনাল মলকেও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ভার্জিনিয়া রাজ্য থেকে শহরে প্রবেশের সেতুগুলোও বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে। সেইসঙ্গে হাজার হাজার ন্যাশনাল গার্ড সেনা ও আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তারা পুরো অঞ্চল জুড়ে অবস্থান করছেন।

এদিকে, তীব্র নিরাপত্তা উদ্বেগ সত্ত্বেও, বাইডেন অনুষ্ঠানটি ঐতিহ্যবাহী স্থানেই করার পরিকল্পনা করছেন।

বাইডেনের আসন্ন যোগাযোগ পরিচালক কেইট বেডিংফিল্ড এবিসির দিস উইক শোতে বলেছেন, আমাদের পরিকল্পনা এবং আমাদের প্রত্যাশা যে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট বাইডেন ২০ জানুয়ারি ক্যাপিটল হিল -এর পশ্চিম পাশের বাইরের দিকে পরিবারের সঙ্গে বাইবেলে হাত রেখে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন।

তিনি বলেন, বাইডেন এবং তার দলের যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থগুলোর প্রতি সম্পূর্ণ বিশ্বাস আছে যারা এক বছরেরও বেশি সময় ধরে অভিষেক অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা নিরাপদ কিনা তা নিশ্চিত করার পরিকল্পনায় কাজ করে যাচ্ছেন।