বিনোদন ২২ জানুয়ারি, ২০২১ ১০:২৭

যে কারণে আম্মাজান সিনেমা থেকে সরে যান শাবানা

বিনোদন ডেস্ক

ঢাকাই সিনেমার অন্যতম জনপ্রিয় নায়িকা ছিলেন শাবানা। এ সময়েও এসে তার জনপ্রিয়তা কমেনি বিন্দুমাত্র। ১৯৬২ সালে শিশুশিল্পী হিসেবে সিনে পর্দায় অভিষেক ঘটে শাবানার। তারপর ১৯৬৭ সালে ‘চাকোরী’ চলচ্চিত্রে চিত্রনায়ক নাদিমের বিপরীতে প্রধান নারী চরিত্রে অভিনয় করেন করে নায়িকা হিসেবে পুরোদমে চলচ্চিত্রে অভিষেক হয় তার। তারপর শুরু দর্শকদের মন জয় করে নেয়ার পালা।

এরপর, ইতিহাস ঘেঁটে দেখা যায় ঢাকাই ছবির ইতিহাসে অন্যতম সফল চলচ্চিত্র আম্মাজান। ১৯৯৯ সালে মুক্তি পাওয়া মান্না অভিনীত এই ছবিতে অভিনয় করার কথা ছিল কিংবন্তি অভিনেত্রী শাবানার। ছবিতে প্রয়াত মান্নার মায়ের চরিত্রে ভাবা হয়েছিল তাকে।

পরিচালক কাজী হায়াতের প্রথম পছন্দ ছিল এই শাবানাকেই। কাজী হায়াতকে শিডিউল দেবেন বলেও ছবিটি থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন তিনি।

ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও প্রয়াত নায়ক মান্নার মা হতে পারেননি শাবানা। ‘আম্মাজান’ ছবির পেছনের গল্প বলতে গিয়ে কাজী হায়াত জানান, এফডিসি’র আট নম্বর ফ্লোরের মেকআপ রুমে শাবানা এই ছবির গল্প শুনেন। গল্পটি শুনে তিনি কাঁদলেনও। আমাকে সঙ্গে সঙ্গে বলে দিলেন পরের দিন এসে তার শিডিউল নেয়ার জন্য। আমি বলেছি, পরের দিন সাইনিং মানি নিয়েও আসবো। পরের দিন আমি যথাসময়ে দুই লাখ টাকা নিয়ে তার কাছে যাই।

কিন্তু আমাকে দেখার পর কথা না বলে শাবানা চলে গেলেন আমার কাছ থেকে। তারপর দুপুরের শুটিংয়ের বিরতির সময় এসে তিনি জানান ছবিটি করতে পারবেন না।

সে সময় কারণ হিসেবে শাবানা বলেন, তখন তিনি যে নায়কদের বিপরীতে কাজ করছেন তারা চান না মান্নার মায়ের চরিত্রে শাবানা অভিনয় করুক। পরবর্তীতে এই ছবিতে ‘আম্মাজান’ ভূমিকায় অভিনয় করেন অভিনেত্রী শবনম।