বিনোদন ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ০৫:৫৯

মেয়ে দেখলে মাথা ঘুরায় আমার স্বামী এমন নয় : মৌসুমী

বিনোদন ডেস্ক

এখন থেকে পঁচিশ বছর আগে ১৯৯৫ সালের মার্চ তারকা দম্পতি মৌসুমী-ওমর সানি বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন তাঁদের দুই সন্তান ফারদিন ফাইজা এই দম্পতির সুখের সংসার রহস্য জানার আগ্রহ ভক্তদের বিষয়ে মুখ খেলেছেন মৌসুমি ওমর সানি

মৌসুমী বলেন, ‘আমার স্বামী অন্যদের মতো নয় আজ এই মেয়ে দেখলে হাঁ করে পড়ে যায়, কাল ওই মেয়ে দেখলে মাথা ঘুরে পড়ে যায়, রকম নয় শুরুতেও তেমন ছিল না, এখনো নেই ২৬ বছর ধরে সুখে-শান্তিতে ঘর করার এটাও একটা অন্যতম কারণ অনেক মেয়েই তাদের স্বামীকে নিয়ে খুব আফসোস আর দুঃখ করে নানা রকম কথাবার্তা বলে তখন খুব খারাপ লাগে কিন্তু আজ পর্যন্ত সানিকে নিয়ে কোনো অভিযোগ করতে হয়নি আমার সানির সবচেয়ে ইতিবাচক দিক হচ্ছে, খুব সহজে মানুষকে ভালোবাসে, বিশ্বাস করে যত সহজে রাগে, তার চেয়ে তার দ্রুত রাগ কমে যায় মানুষকে ক্ষমা করে দেয় এটা আমার খুব পছন্দ

1

মৌসুমী আরও বলেন, ‘সবকিছুই ম্যানেজ করা যায়, কিন্তু সম্পর্কের ছন্দপতন খুব একটা করা যায় না সম্পর্ক বেঁচে থাকে পরস্পরের প্রতি বিশ্বাস আর শ্রদ্ধায় এটাও ঠিক, শুধু দাম্পত্যে নয়, যেকোনো সম্পর্কেই বিশ্বাস শ্রদ্ধা থাকতে হবে বন্ধুত্বের মধ্যেও তা বন্ধুকে ভালো না বাসলে, শ্রদ্ধা না করলে বন্ধুত্ব টিকবে না অনেকে ভাবতে পারেন, খুব সুন্দর আকর্ষণীয় চেহারার কোনো ছেলে-মেয়ে বিয়ে করলে বুঝি সংসার সুখের হয়, মোটেও তা নয় সংসারজীবনে স্বামী-স্ত্রী পরস্পরের স্যাক্রিফাইসের মানসিকতা থাকতে হবে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে একজনে ভালোবাসল বা বিশ্বাস করল কি না, তা নিয়ে পড়ে না থেকে, যে কারোরই নিজের ভালোবাসা বিশ্বাস অর্জনের চেষ্টা করতে হবে দ্বন্দ্ব তৈরি হতে পারে, রকম ছোটখাটো বিষয় এড়িয়ে চলতে হবে

সংসারের ২৫ বছর পার করে এখনো বিশ্বাস করতে পারেন না মৌসুমী তিনি বলেন, ‘সত্যি বলতে, আমার এখনো অবাস্তব মনে হয় কীভাবে কেটে গেছে এতটা সময়, জানিই না মনে হয়, এই তো কদিন আগে বিয়ে হয়েছে

2

দীর্ঘ দাম্পত্যজীবনের রহস্য প্রসঙ্গে ওমর সানী বলেন, ‘আমাদের মধ্যে আত্মবিশ্বাস প্রবল একে অন্যকে ছাড় দিই এবং আমাদের ভেতর বোঝাপড়াও অনেক ভালো আমরা দুজনই আমাদের ছেলেমেয়ের কথা অনেক বেশি চিন্তা করিমৌসুমীর কোন গুণ আপনাকে মুগ্ধ করে? জানতে চাইলে সানি বললেন, ‘মৌসুমীকে ভালোবাসা ছাড়া কোনো উপায় নেই কারণ, সে ভালোবাসার মতোই একজন মেয়ে আমার সবচেয়ে ভালো লাগে, তার অসাধারণ ব্যক্তিত্ব