বিনোদন ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ০৯:১৬

কৃষক আন্দোলন নিয়ে যা বললেন কঙ্গনা

কঙ্গনা রনৌত

কঙ্গনা রনৌত

বিনোদন ডেস্ক

বলিউড তো আছেই, ভারতের এমন কোনো বিষয় নেই, যা নিয়ে এই তারকা তির্যক মন্তব্য করেননি, তিনি কঙ্গনা রনৌত সমকালীন আন্দোলন, রাজনীতি, মাদক থেকে শুরু করে কৃষকের অধিকার সব বিষয়ে তাঁর মন্তব্য করা চাই চাই বিশেষ করে টুইটারে ভিডিও বার্তা দিয়ে তিনি আলোচনায় আসেন প্রায়ই গত বছরের অক্টোবর মাসে ভারতের কৃষি বিল নিয়ে মন্তব্য করে বিতর্কে পড়েছিলেন কঙ্গনা কৃষি বিলের মতো স্পর্শকাতর বিষয় নিয়ে ভুল বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়ানোর জন্য কঙ্গনার বিরুদ্ধে মামলাও করেছিলেন রমেশ নায়েক নামের এক আইনজীবী তারপরও থেমে নেই কঙ্গনার বক্তব্য এবার তিনি মন্তব্য করেছেন, কৃষক আন্দোলনের নামে প্রকাশ্যে দেশেসন্ত্রাসচলছে

টুইটারে প্রকাশিত এক ভিডিও বার্তায় কঙ্গনা বলেছেন, ‘যাঁরা এই সন্ত্রাসবাদীদের সমর্থন করছেন বা উসকানি দিচ্ছেন, তাঁদের প্রত্যেককে জেলে পাঠানো উচিত এর আগে ধরনের সন্ত্রাসের ভয়েই নাগরিকত্ব অধিকার আইন কার্যকর করা যায়নি আমি নিশ্চিত, কৃষি আইনও এভাবেই আটকে যাবে ভোট দিয়ে আমরা জাতীয়তাবাদী সরকার এনেছি ঠিকই তবে শেষ পর্যন্ত প্রতিবারই জিতে যাচ্ছেন এই জাতীয়তাবাদবিরোধীরাই

গত মঙ্গলবার ছিল ভারতের ৭২তম প্রজাতন্ত্র দিবস বিতর্কিত তিন কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে এদিন নয়াদিল্লির রাজপথে ট্রাক্টর মিছিল করার পূর্বঘোষণা ছিল দেশটির আন্দোলনরত কৃষকদের

তাঁদের এই কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে নয়াদিল্লিতে সংঘাত-সংঘর্ষ সহিংসতা ঘটে রাজপথে প্রজাতন্ত্র দিবসের বার্ষিক প্যারেড চলাকালেই সীমান্তে অবস্থানরত কৃষকদের একাংশ ব্যারিকেড ভেঙে রাজধানীতে ঢুকে পড়েন কেউ পায়ে হেঁটে ঢোকেন, কেউ ট্রাক্টর নিয়ে এই নিয়ে বিভিন্ন স্থানে কৃষকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয় এই সংঘর্ষের মধ্যেই একদল কৃষক রাজধানীর কেন্দ্রে পৌঁছে যান তাঁরা লালকেল্লায় উঠে পড়েন পরে অবশ্য লালকেল্লা থেকে কৃষকদের হটিয়ে দেয় পুলিশ মঙ্গলবার দুপুর থেকে বুধবার পর্যন্ত সামাজিকমাধ্যমে একের পর এক টুইট বার্তা দিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন কঙ্গনা

কৃষি আইনবিরোধী আন্দোলন নিয়ে এর আগেও মতামত দিয়েছেন কঙ্গনা সে সময় বিজেপির পক্ষ নিয়ে কঙ্গনা ওই টুইটে লিখেছিলেন, ‘যাঁরা সিএএ (নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন) নিয়ে গুজব ছড়িয়েছিলেন, তাঁরাই এখন কৃষি বিল নিয়ে উল্টাপাল্টা কথা বলছেন জন্য দেশে দাঙ্গা হচ্ছে এই লোকেরা সন্ত্রাসী আমি কী বলছি, আপনারা নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন

কৃষকদের সন্ত্রাসবাদীর সঙ্গে তুলনা করে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছিল তাঁকে মঙ্গলবার লালকেল্লার ঘটনায় সেই পুরোনো প্রসঙ্গ টেনে এনেছেন তিনি কঙ্গনা লিখেছেন, ‘কৃষকদের সন্ত্রাসবাদী বলেছিলাম বলে ছয়টা সংস্থা আমার সঙ্গে চুক্তি বাতিল করেছিল আমাকে বলা হয়েছিল, ওই মন্তব্যের জন্যই আমাকে তারা সংস্থার প্রতিনিধিত্ব করতে দিতে পারছে না আজ আমি বলছি, প্রত্যেক ভারতীয়, যাঁরা কৃষকদের এই দাঙ্গাকে সমর্থন করছেন, তাঁরা নিজেরাও একেকজন সন্ত্রাসবাদী

এর আগে কৃষি আইনবিরোধী আন্দোলন নিয়ে গত মাসেই কঙ্গনার সঙ্গে টুইট যুদ্ধ হয়েছিল পাঞ্জাবি অভিনেতা দিলজিৎ দোসাঞ্জের সেখানে অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার বিরুদ্ধেও কৃষকদের উসকানি দেওয়ার অভিযোগ এনেছিলেন কঙ্গনা

প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার উদ্দেশে তিনি বলেছিলেন, বিদেশে কাজ পাওয়ার জন্যই এসব করে থাকেন তিনি মঙ্গলবারের ঘটনায় কৃষক আন্দোলনের সমর্থনকারীদের জেলে পাঠানোর কথা বলে কঙ্গনা দিলজিৎ আর প্রিয়াঙ্কার দিকেই ইঙ্গিত করেছেন বলে মনে করছেন অনেকে টুইটারে দিলজিৎ আর প্রিয়াঙ্কার নাম উল্লেখ করে আক্রমণও করেছেন কঙ্গনা একটি ছবি দিয়ে লিখেছেন, ‘দিলজিৎ আর প্রিয়াঙ্কা, তোমাদের এই ঘটনার ব্যাখ্যা দিতেই হবে