বিনোদন ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১১:০৬

চলচ্চিত্র ও অভিনয়ে একুশে পদক পাচ্ছেন যারা

বিনোদন ডেস্ক

এ বছর ২১ জন বিশিষ্ট ব্যক্তিকে একুশে পদক দিচ্ছে সরকার। বৃহস্পতিবার সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (অনুষ্ঠান) অসীম কুমার দে স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে তাদের নাম ঘোষণা করা হয়। তাদের মধ্যে আছেন শিল্পকলার ছয়জন, তিনজন ভাষা সৈনিক, তিন মুক্তিযোদ্ধা, তিনজন সাহিত্যিক। সাংবাদিকতা, গবেষণা, অর্থনীতি ও আলোকচিত্রে একুশে পদক পাচ্ছেন একজন করে।

এছাড়া বিনোদন জগত থেকে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ এই রাষ্ট্রীয় সম্মাননা দেয়া হচ্ছে ছয়জনকে। তারা হলেন- রাইসুল ইসলাম আসাদ (অভিনয়), সুজাতা আজিম (অভিনয়), আহেমদ ইকবাল হায়দার (নাটক), সৈয়দ সালাউদ্দিন জাকী (চলচ্চিত্র)।

রাইসুল ইসলাম আসাদ

বেতার, মঞ্চ, টেলিভিশন এবং চলচ্চিত্রের বিশিষ্ট অভিনেতা রাইসুল ইসলাম আসাদ একজন বীর মুক্তিযোদ্ধাও। ১৯৭১ সালে তিনি দেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ চলাকালীন ঢাকায় গেরিলা যুদ্ধে অংশ নেন। এরপর ১৯৭২ সাল থেকে মঞ্চ নাটকে এবং পরের বছর থেকে চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেন। তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে চার বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন।

সুজাতা আজিম

অভিনেত্রী সুজাতা আজিম হচ্ছেন রূপালি পর্দার প্রথম ‘রূপবান’। ১৯৬৫ সালের ‘রূপবান’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি ব্যাপক পরিচিতি পান। এছাড়া বহু স্মরণীয় চরিত্রে তাকে দেখা গেছে। তবে ১৯৭৮ সালের পর প্রায় একযুগ তিনি অভিনয় থেকে দূরে ছিলেন। বর্তমানে তিনি আবার নিয়মিত হয়েছেন টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রে।

আহমেদ ইকবাল হায়দার

স্বাধীনতা-পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশের নাট্য আন্দোলনের বিকাশে যে কয়জন মানুষের অগ্রণী ভূমিকা রয়েছে, তাদের মধ্যে আহমেদ ইকবাল হায়দার অন্যতম। বাংলাদেশের নাট্য আন্দোলনের অন্যতম এই পুরোধা ব্যক্তিত্ব চট্টগ্রামের ‘তির্যক’ নাট্যদলের প্রধান।

সৈয়দ সালাউদ্দিন জাকী

সৈয়দ সালাউদ্দিন জাকী একজন বাংলাদেশি চলচ্চিত্র পরিচালক, প্রযোজক এবং কাহিনীকার। তিনি ১৯৮০ সালের চলচ্চিত্র ‘ঘুড্ডি’-এর কাহিনী লিখে ‘বাংলাদেশ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার’-এ শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতা বিভাগে পুরস্কার লাভ করেন।