বিনোদন ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০৫:৪৫

বহুদিন ধরে পর্দার আড়ালে তারা

বিনোদন ডেস্ক

‘যে পেশায় অবসর নেই’ বাক্যটি অভিনয়ের ক্ষেত্রে বহুল প্রচলিত। কিন্তু ঢাকাই সিনেমায় নানা কারণে অনেক তারকা শিল্পী ক্যামেরার সামনে নেই দীর্ঘদিন। অনেক তারাকারা জানান সময়ের অভাবে, আবার কেউ ভালো গল্পের অভাবে, আবার কেউ সুযোগের অভাবেও ক্যামেরার সামনে দাঁড়াছেন না। তেমনই কয়েকজন শিল্পীকে নিয়ে আজকের আয়োজন।

ওয়াসিম

বাংলাদেশি ছবির একমাত্র অভিনেতা, যিনি হলিউডেও অভিনয় করার প্রস্তাব পেয়েছিলেন। কিন্তু ব্যাটে বলে মেলেনি বলে, কাজটি হয়নি। তিনি ওয়াসিম। তার অভিনীত ছবি মানেই হিট। অথচ এক সময়ের তুখোড় জনপ্রিয় এ অভিনেতার বর্তমান অবস্থা অনেক দর্শক জানেন না। কিংবা এ প্রজন্মের অনেক অভিনয়শিল্পীও তার সম্পর্কে খুব একটা জানেন না। কবে নাগাদ লাইট, ক্যামেরা, অ্যাকশন শব্দগুলো শুনেছেন, তা তিনি নিজেও বলতে পারেননি। অথচ তাকে এখনো ক্যামেরা টানে। শুধু সময় ও গল্পের অভাব।

আকবর হোসেন পাঠান ফারুক

ঢাকাই ছবির মিয়া ভাইখ্যাত অভিনেতা আকবর হোসেন পাঠান ফারুক কয়েকটি সাক্ষাৎকারে বলেছেন, চিত্রনায়িকা মৌসুমী তার শেষ নায়িকা। তার সঙ্গে একটি ছবিতে অভিনয় করেন, তবে কবে সে ছবির শুটিং শেষ হয় কিংবা ছবিটি কেনো মুক্তি পায়নি, তার কোনো নির্দিষ্ট তথ্য তিনি দিতে পারেননি।

কবে শেষ ক্যামেরার সামনে সংলাপ বলেছেন, তাও মনে করা কঠিন বলে তিনি জানান। ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও ক্যামেরার সামনে দাঁড়াতে পারছেন না তিনি। রাজনীতি ও পরিবার নিয়ে বর্তমানে ব্যস্ত সময় যাচ্ছে গুণী এ অভিনেতার।

বাপ্পারাজ

নিজের নির্মিত ‘কার্তুজ’ ছবিতে সর্বশেষ দেখা গিয়েছিল চিত্রনায়ক বাপ্পারাজকে। নায়ক রাজের মৃত্যুর পর পারিবারিক কাজেই ব্যস্ত হয়ে পড়েন এ অভিনেতা। ইচ্ছা থাকলেও অভিনয়ে ফিরতে পারেননি দীর্ঘদিন। বর্তমানে অভিনয় ফেরা নিয়ে তার তেমন আগ্রহও নেই। বাবার ব্যবসায় মনোযোগী এ নায়ককে আর অভিনয়ে দেখা যাবে কিনা, তাও নিশ্চিত করে বলা কঠিন। তবে ক্যামেরার সামনে একেবারেই দাঁড়াবেন না, এমনটি তিনি কখনোই বলেননি।

শাবনূর

এক সময়ের একচ্ছত্র আধিপত্য ছিল তার। অভিনয়েও তিনি বেশ দক্ষ। নতুনদের আগমনে ক্যারিয়ারে তারও ছন্দপতন ঘটেছে। হতাশা কাটাতে অস্ট্রেলিয়ায় পাড়ি জমান। দীর্ঘদিন সেখানে অবস্থান করলেও মাঝে মধ্যে দেশে ফেরেন। চেষ্টা করেন নিজের হারানো ক্ষমতা উদ্ধারের। কিন্তু সেটা আর সম্ভব হয়নি। ইচ্ছা থাকলেও এ নায়িকা কবে নাগাদ ফের ক্যামেরার সামনে দাঁড়াবেন সেটা বলা মুশকিল।

 এ তালিকায় আরও যারা আছেন:

ইচ্ছা থাকলেও ভালো গল্পের অভাবে ক্যামেরার সামনে দাঁড়াতে পারছেন না জনপ্রিয় অভিনেত্রী ববিতা। কয়েকবার অবশ্য আশার বাণী শুনিয়েও ছিলেন। তার বড় বোন সুচন্দাও শুনিয়েছেন একই কথা। তবে অসুস্থতা কাটিয়ে ক্যামেরার পেছনে আবারও কাজ শুরু করতে পারেন এ অভিনেত্রী। নন্দিত অভিনেত্রী শাবানা তো আর কখনো ক্যামেরা সামনে দাঁড়াবেন না বলে ঘোষণাই দিয়েছেন।

‘আম্মাজান’ ছবিতে অভিনয়ের পর আর দেখা যায়নি চিত্রনায়িকা শবনমকে। তিনিও ভালো গল্পের অভাবে ফিরতে পারছেন না বলে জানিয়েছেন। চিত্রনায়িকা রত্নাও ফিরতে চেয়েছিলেন। কিন্তু সে সুযোগ হয়নি তার। আরও অনেকে রয়েছেন, যারা অভিনয়ের জন্য উন্মুখ। কিন্তু মিলছে না সুযোগ। সংক্ষিপ্ত এ তালিকা থেকে বাদ পড়েছে অনেক তারকা।