করোনা আক্রান্ত ছিলেন অধ্যাপক আনিসুজ্জামান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে হবে দাফন

জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন বলে জানিয়েছেন তার ছেলে আনন্দ জামান। তাই করোনা শনাক্ত হওয়া অন্যান্য মৃত ব্যক্তির মতই স্বাস্থ্যবিধি মেনেই দাফন করা হবে আনিসুজ্জামাকে।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টা ৫৫ মিনিটে ঢাকায় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। তিনি বার্ধক্যজনিত নানা রোগে ভুগছিলেন।

আনিসুজ্জামানের ছেলে আনন্দ জামান রাতে গণমাধ্যমকে বলেন “আজ সকালে আব্বার নমুনা নেওয়া হয়। বিকালে মৃত্যুর পর আবারও নমুনা নেওয়া হয়। একটু আগে জানতে পারলাম, রেজাল্ট পজিটিভ এসেছে।”

অসুস্থ হলে জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামানকে ইউনিভার্সেল কার্ডিয়াক হাসপাতাল থেকে গত শনিবার ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচে) স্থানান্তর করা হয়। সেখানেই তিনি আজ বিকেলে মারা যান।

 ড. আনিসুজ্জামানের পরিবারের সদস্যরা জানান, অসুস্থ হয়ে পড়লে গত ২৭ এপ্রিল বরেণ্য এই শিক্ষাবিদকে রাজধানীর ইউনিভার্সেল কার্ডিয়াক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। তাঁর হার্ট, কিডনি, ফুসফুস, উচ্চ রক্তচাপসহ নানা শারীরিক জটিলতা ছিল। এর আগেও গত মাসের প্রথম সপ্তাহে একবার তিনি আরেকটি হাসপাতালে ভর্তি হন।