১৮ মার্চ, ২০২১ ০২:০৩

কোয়ার্টার ফাইনালে বায়ার্ন

স্পোর্টস ডেস্ক

নিয়মরক্ষার ম্যাচে ২-১ গোলের জয়ে শেষ ষোলতে বায়ার্ন। গতকাল বুধবার রাতে আনুষ্ঠানিকতার ম্যাচেও যেন শান্তভাবেই জয় নিশ্চিত করে নিল বাভারিয়ানরা। ঘরের মাঠ অ্যালিয়েঞ্জ এরিনায় দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে বায়ার্ন জিতল ২-১ গোলে।

দুই লেগে মিলিয়ে ৬-২ ব্যবধানে হেরে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের চলতি মৌসুম থেকে ছিটকে গেল ইতালিয়ান জায়ান্ট লাৎসিও। তাদের জন্য ঘাতক হয়ে উঠেছিলেন রবার্ট লেভানডফস্কি। দুই লেগেই দুর্দান্ত পারফর্ম করলেন বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ স্ট্রাইকার। দুটো ম্যাচই প্রথম গোল দেখেছে তার সৌজন্যে।

প্রথমার্ধের শুরুর দিকে অবশ্য ঘুমপাড়ানি ফুটবল খেলেছে বায়ার্ন মিউনিখ। সুযোগ বুঝে স্বভাবসুলভ আক্রমণাত্মক মেজাজে খেলেছে লাৎসিও। ইতালিয়ান ক্লাবটির দৌড় থামান লেভানডফস্কি। ৩৩ মিনিটে পেনাল্টি থেকে চলতি মৌসুমের ৩৯তম গোল করে স্বাগতিকদের লিড এনে দেন এই স্ট্রাইকার। লাৎসিওর ডি-বক্সে লিয়ন গোরেৎস্ক ফাউল হলে পেনাল্টি পায় বায়ার্ন।

তবে লিড নিলেও চেনাছন্দে ফিরতে পারেনি বায়ার্ন মিউনিখ। ওদিকে লড়াইয়ে টিকে থাকতে লাৎসিও গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে। সেটাই কাল হলো। পাল্টা-আক্রমণে হজম করতে হলো গোল। ৭৩ মিনিটে স্কোর ২-০ করেন এরিক ম্যাক্সিম চুপো-মোটিং। ৯ মিনিট পর লাৎসিওর পক্ষে একমাত্র ও সান্ত্বনার গোলটি করেন মার্কো পারোলো। যা তাদের বিদায়ী অর্ঘ্য হয়ে থাকল।

লাৎসিওকে বিদায় করে চুর্নামেন্টে নতুন ইতিহাস গড়ল ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন মিউনিখ। এনিয়ে রেকর্ড (সর্বোচ্চ) ১৯ বারের মতো টুর্নামেন্টের শেষ আটের টিকিট কাটল বাভারিয়ান জায়ান্টরা। শিরোপা ধরে রাখতে এরচেয়ে ভালোভাবে এগোতে পারতো না হানসি ফ্লিকের দল। জার্মান কোচের তুরুপের তাস লেভানডফস্কি।

এই টুর্নামেন্টের ইতিহাসে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ও লিওনেল মেসির পর তিনিই সর্বোচ্চ গোলদাতা। আগের ম্যাচে রিয়াল মাদ্রিদ কিংবদন্তি রাউল গঞ্জালেসকে পেছনে ফেলা লেভার গোল সংখ্যা এখন ৭৩টি। মেসির ঝুলিতে আছে একশ কুড়ি গোল। ১৩৪ গোল নিয়ে টুর্নামেন্টের সব ফুটবলারকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন রোনালদো।

লেভা অবশ্য আরেকটি গোল পেতে পারতেন। ৬৭ মিনিটে তার বুলেট গতির শট ফিরে আসে লাৎসিওর পোস্টে লেগে। এরপরই মাঠ থেকে লেভাকে তুলে নেন বায়ার্ন কোচ ফ্লিক। লেভার বদলি হিসেবে মাঠে নেমেই গোল করেন ‍চুপো মোটিং। লাৎসিওর গোলটাও এসেছে বেঞ্চ ছেড়ে আসা ফুটবলার পারোলোর দারুণ এক ফ্রি-কিক থেকে।

কোয়ার্টার ফাইনালে যারা: প্যারিস সেন্ট জার্মেই, রিয়াল মাদ্রিদ, বরুসিয়া ডর্টমুন্ড, লিভারপুল, পোর্তো, ম্যানচেস্টার সিটি, চেলসি ও বায়ার্ন মিউনিখ।

 


আরো খবর