উন্নয়ন সংবাদ ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০৭:১৮

পা ও বুকের হাড় না কেটেই বাংলাদেশে প্রথম সফল বাইপাস সার্জারি করলেন ডা. সিয়াম

ডেস্ক রিপোর্ট ।।

বুকের হাড় এবং পা না কেটে বাংলাদেশে এই প্রথম সফল বাইপাস সার্জারি করা হলো জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে। বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতালে ডা: আশ্রাফুল হক সিয়ামের নেতৃত্বে একদল তরুণ চিকিৎসক এই প্রথম বুকের হাড় এবং পা না কেটেই বাইপাস সার্জারি করতে সক্ষম হয়েছেন।

জানা যায়, ঢাকার ধামরাইয়ের আলামিন (৫০) গত ১২ সেপ্টেম্বর  হার্টের দু'টি ব্লক নিয়ে জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডা: আশ্রাফুল হক সিয়ামের অধীনে সার্জারি বিভাগে ভর্তি হন। 

সাধারণত বাইপাস সার্জারিতে বাইপাস করার জন্য পা কেটে শিরা নেওয়া হয় এবং তা বুক কেটে হার্টে গ্রাফট দেওয়া হয়। কিন্তু এই ক্ষেত্রে বুকের হাড় এবং পা না কেটে MICS-CABG Ges EVH পদ্ধতিতে এই কাজটি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে ডা: আশ্রাফুল হক সিয়াম বলেন, MICS-CABG Ges EVH দু'টি আলাদা আলাদা পদ্ধতি। সাধারণত বাইপাস সার্জারীতে পায়ের গোড়ালি থেকে থাই পর্যন্ত পা কেটে শিরা নিয়ে বাইপাস করা হয়। কিন্তু EVH এর মাধ্যমে পা না কেটে ছোট একটা ছিদ্র করে এন্ডোসকপির মাধ্যমে এই শিরা তুলা হয়। এটা একটি নতুন পদ্ধতি এর ফলে পায়ের কাটা ছিড়া কম হয়, ব্যথা কম থাকে, ক্ষত স্থানে দাগ থাকে না, ইনফেকশন হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে এবং রোগী দ্রুত হাঁটা চলা শুরু করতে পারেন।

MICS-CABG এর মাধ্যমে বুকের হাড় না কেটে বাইপাস সার্জারি করার ফলে রোগীর হাড় জোড়া লাগার কোন ব্যাপার থাকে না, রক্তক্ষরণ কম হয়, ব্যথা কম হয়, ইনফেকশন হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে, আইসিইইউ এবং হাসপাতালে থাকার সময় কমে যায় এবং রোগী দ্রুত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে যেতে পারেন এবং খরচও অনেক কমে যায়। এর আগেও MICS-CABG পদ্ধতিতে ডা: সিয়াম এই হাসপাতালে বুকের হাড় না কেটে বাইপাস সার্জারি করেছেন। কিন্তু কিন্তু পা কাটতে হয়েছিলো সেবার। তবে এবার বুক এবং পা কোনোটিই না কেটে ছোট ছিদ্রের মাধ্যমে বাইপাস করা হল।

ডা: সিয়াম বলেন, আলামিন সুস্থ আছেন, আজকে স্বাভাবিক খাওয়া-দাওয়া করেছেন, ব্যথাও কম আছে সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী শনিবার তাকে হাসপাতাল থেকে রিলিজ দেওয়া হবে। ডা: সিয়াম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ বরাদ্দের জন্য এই যন্ত্রপাতি ক্রয় করা সম্ভব হয়েছে এবং গরীব রোগীদের সেবা প্রদান করা সম্ভব হচ্ছে।

এই অপারেশন সম্পর্কে বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ডা: রামপদ সরকার বলেন, এই প্রথম বাংলাদেশে এ ধরনের অপারেশন জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসাপাতালে সরকারি ব্যবস্থাপনায় সম্পন্ন করা সম্ভব হল। এটা কার্ডিয়াক সার্জারির জন্য অত্যন্ত সুসংবাদ। এর ফলে এ দেশের রোগীদের বিদেশে যাওয়া প্রবণতাও কমে যাবে।

উল্লেখ্য, জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতালে গত ২৫ আগস্ট বুকের হাড় না কেটে প্রথম ওপেন হার্ট সার্জারি করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় এবার বুকের হাড় এবং পা কোনোটিই না কেটে বাংলাদেশে এই প্রথম সফলতার সাথে বাইপাস সার্জারি করা সম্ভব হলো।