বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি ১ নভেম্বর, ২০২০ ০৪:২৭

হাওয়া থেকে তৈরি হচ্ছে হীরা

টেক ডেস্ক

যুক্তরাজ্য-ভিত্তিক একটি দল বায়ুমণ্ডল থেকে কার্বন সংগ্রহ করে পরিবেশবান্ধব হীরা তৈরি করেছেন। দলটির দাবি, কার্বন দিয়ে বিশ্বের প্রথম “শূন্য প্রভাব" হীরা তৈরিতে সক্ষম হয়েছেন তারা।

দলটি বায়ুমণ্ডল থেকে নানাবিধ রাসায়নিক উপাদান সংগ্রহ করেছেন। মূল্যবান হীরা তৈরির পুরো প্রক্রিয়ায় ব্যবহার করেছেন সূর্য ও বাতাসও বৃষ্টির পানি। আগামী বছরের শুরুতে হীরাগুলো প্রি-অর্ডার করা সম্ভব। খবর স্কাই নিউজের।

হীরা তৈরির উদ্যোগটি নিয়েছেন ‘ইকোট্রিসিটি’ এর প্রতিষ্ঠাতা এবং ‘ফরেস্ট গ্রিন রোভারস’ ফুটবল ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা ডেল ভিনস। যুক্তরাজ্যের স্ট্রাউড শহরে গড়ে তুলেছেন ‘স্কাই ডায়মন্ড’।

গতানুগতিক হীরা উত্তোলনে বিশ্বকে অনেক ক্ষয়ক্ষতির মধ্য দিয়ে যেতে হয়। তাই দলটির মূল লক্ষ্য ছিল গতানুগতিক পন্থায় হীরা উত্তোলনের পথকে চ্যালেঞ্জ জানাবে এমন বিকল্প খুঁজে বের করা।

পাঁচ বছর গবেষণা করে তারা নিশ্চিত করেছেন তাদের তৈরি হীরাটি যাতে রাসায়নিক ও বাহ্যিক দিক থেকে পৃথিবীর গর্ভ থেকে উত্তোলিত হীরার মতোই। এরই মধ্যে এটি  সনদ পেয়েছে ‘ইন্টারন্যাশনাল জেমোলজিক ইন্সটিটিউট’ থেকে।

ভিনস বলেছেন, “সম্পূর্ণ উপাদানই আসে বায়ুমণ্ডল থেকে, এবং এটি শুধু স্বল্প বা শূন্য কার্বন নয়, এটি আদতে নেগেটিভ কার্বন। কারণ আমরা বায়ুমণ্ডলের কার্বনকে একটি স্থায়ী কার্বন কাঠামোতে নিয়ে আসছি, যা হলো হীরা।”      

তিনি আরও বলেছেন, “আমাদের আর বড় বড় গর্ত খুঁড়তে হবে না মাটিতে। আমরা চাইলে আকাশ থেকে সম্পূর্ণ অনুকূল প্রক্রিয়ায় এটি তৈরি করে নিতে পারবে। আমরা এটিকে একবিংশ শতাব্দির প্রযুক্তি হিসেবেই দেখছি, একদম ওই ধরনের যার প্রয়োজন পড়বে জলবায়ু এবং অন্যান্য স্থায়িত্ব সংকটের সঙ্গে লড়াই করতে গেলে, এ পন্থায় আমরা আগের মতোই বা আমরা যেমনটা চাই সেভাবেই জীবনযাপন করতে পারব। এবং এটি তৈরী করতে কয়েক সপ্তাহ্ সময় প্রয়োজন হয়।"