বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি ২৯ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৩:৪৩

হুয়াওয়ের নাম ব্যবহার করে তথ্য চুরির অভিযোগ

প্রযুক্তি ডেস্ক

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রায় মেসেজ ফরোয়ার্ড করে জিতে নিন গিফট এমন লোভনীয় মেসেজ পেয়ে থাকে অনেকে হরহামেশাই। সম্প্রতি হুয়াওয়ের নামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ইমেইলের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ছে স্ক্যাম। নতুন বছর উপলক্ষ্যে বিনামূ্ল্যে উপহার দিচ্ছে হুয়াওয়ে এমন দাবি করে মানুষকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে অপরিচিত এক ওয়েবসাইটে। আর ওই সাইটে ব্যক্তিগত তথ্য হারাচ্ছেন মানুষ।

এ প্রসঙ্গে হুয়াওয়ে জানিয়েছে, তাদের প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে এরকম কোনো উপহার দেওয়া হচ্ছে না।

হোয়াটসঅ্যাপ ও ফেইসবুকের মতো সামাজিক মাধ্যমে ভেসে বেড়াতে দেখা গেছে ওই স্ক্যামের লিংক। মানুষকে সহজে ফাঁদে ফেলতে হুয়াওয়ের লোগো ব্যবহার করেছে জালিয়াতরা। স্ক্যামের লিংকে ক্লিক করলেই অপরিচিত এক ওয়েবসাইটে চলে যাচ্ছেন ব্যবহারকারী। সেখানে তাদের দেখানো হচ্ছে লোভনীয় সব উপহার।

উপহার পেতে দেখানো হচ্ছে ‘গিফট বক্স’। গিফট বক্স খোলার জন্য তিনটি প্রশ্নের উত্তর দিতে হচ্ছে ব্যবহারকারীদের। প্রশ্ন তিনটি হলো আপনি কী হুয়াওয়ের ব্যাপারে জানেন? কোন সামাজিক মাধ্যমটি সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করে থাকেন? নতুন বছরের উপহার হিসেবে কোন হুয়াওয়ে পণ্যটি কিনতে চান?

উত্তর দেওয়ার পর ভুক্তভোগীদেরকে জানানো হচ্ছে, আপনি উপহার পাওয়ার যোগ্য। এর পরপরই দুটি খালি বাক্স ও একটি উপহারের বাক্স খুলছে। উপহার হাতে পেতে ব্যবহারকারীদেরকে প্রচারণাটি হোয়াটসঅ্যাপ, লাইন ও ফেইসবুকে পাঁচটি গ্রুপ, ২০ জন বন্ধুর সঙ্গে শেয়ার করতে বলা হচ্ছে। এ কাজের জন্য জালিয়াতরা সময় বেঁধে দিচ্ছে ছয়শ’ সেকেণ্ড। ধাপগুলো পার করে ‘কন্টিনিউ টু রিসিভ নিউ ইয়ার গিফটস’ এ ক্লিক করলেই ব্যক্তিগত তথ্য ও ডেটা বেহাত হচ্ছে।

অনলাইন থ্রেট অ্যালার্টসের ওয়েবসাইট বলছে, যদি স্ক্যাম পেয়ে থাকেন, তাহলে এর নির্দেশনা অনুসরণ করবেন না।

এর জালিয়াতির মাধ্যমে হ্যাকাররা হাতিয়ে নিচ্ছেন ব্যবহারকারীর ব্যাক্তিগত তথ্য। তাই এ থেকে বাঁচতে অপরিচিত কারো কাছ থেকে পাওয়া মেসেজ বা মেইলের কোনো লিংকেই ক্লিক করবেন না। এছাড়া নাইকি, অ্যামাজন, এমিরেটস বা কাতার এয়ারওয়েজসহ বিভিন্ন সুপরিচিত ব্র্যান্ডের নাম ব্যবহার করে ফাঁদে ফেলছে একদল হ্যাকার।