বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি ২৯ জানুয়ারি, ২০২১ ০৩:৩৬

ব্যবসা গুটিয়ে নিচ্ছে টিকটক

টেক ডেস্ক

৫৯টি চীনা অ্যাপলিকেশনের সাথে ভারতের নিষেধাজ্ঞার মুখে পরে টিকটকও। ফলে দেশটি থেকে ব্যবসা গুটিয়ে নেয়ার কথা ভাবছে টিকটকের মাদার সংস্থা বাইটড্যান্স।

গত বুধবার তাদের প্রতিষ্ঠানে কর্মরত দুই হাজারেরও বেশি চাকরিজীবীকে ইস্তফা দিতে বলেছে সংস্থাটি। খবর ভারতীয় গণমাধ্যমের।

বাইটডান্সের একাধিক অ্যাপ রয়েছে ভারতে। তবে এবার এই দেশ থেকে ব্যবসা গোটানোর পথে হাঁটছে চীনা সংস্থাটি। টিকটক, হ্যালোসহ বিভিন্ন অ্যাপে কর্মরত ভারতীয়র সংখ্যা দু’হাজারেরও বেশি। এই ছাটাইয়ের ফলে কাজ হারাতে চলেছে দুই হাজারেরও বেশি চাকরিজীবী।

এদিন সকালে বাইটডান্সের অন্তর্বর্তীকালীন প্রধান নির্বাহী (সিইও) ভেনেসা পাপ্পাস ও ভিপি ব্লেক শ্যান্ডলে জানান, ‌‌অনেক চেষ্টা করেছি, যাতে এ দেশের আইন-কানুন মেনে আমরা কাজ করতে পারি। গত সাতমাস ধরে প্রশাসনের সব অভিযোগের সঠিক জবাব দেয়ার চেষ্টা করেছি। কিন্তু তারপরও আমরা কাজ শুরুর ছাড়পত্র পাইনি। কবে আবার এই অ্যাপ ভারতে ফিরবে সেটাও স্পষ্ট নয়। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক।

তারা আরও জানান, ছয়মাস ধরে দুই হাজারেরও বেশি কর্মীদের পাশে ছিল এ সংস্থা। কিন্তু এবার সংস্থার খরচ কমাতেই হবে। তবে টিকটককে ফের বাজারে ফেরানোর চেষ্টা করা হবে।

কয়েকদিন আগে ভারত সরকার জানিয়েছিল, চীনা অ্যাপ টিকটক ও হ্যালোর জবাবে তারা সন্তুষ্ট নয়। ফলে এগুলোকে চিরতরে নিষিদ্ধ করা হবে। এই খবর প্রকাশ্যে আসার পরই মাথায় হাত পড়ে এখানে কর্মরতদের। এদিন সকালে সংস্থার পক্ষ থেকে অফিশিয়ালভাবে জানিয়ে দেয়া হয়েছে।

এদিকে এই ৫৯টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করা নিয়ে ক্ষুব্ধ চীন। বেইজিংয়ের পক্ষ থেকে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, ভারতের এই পদক্ষেপ বিশ্ব বাণিজ্য চুক্তিকে লঙ্ঘন করছে। চীনের সংস্থাগুলোও ধাক্কা খাবে।

উল্লেখ্য, বিভিন্ন নিরাপত্তা সংস্থার অভিযোগ ছিল, একাধিক চীনা অ্যাপ ভারতীয়দের তথ্য চুরি করছে। এরপরই ৫৯টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করে মোদি-সরকার।