সাক্ষাৎকার ২৩ মার্চ, ২০২১ ০৩:১৪

তরুন ইসলামী চিন্তাবিদ ও সাহিত্যিক হাফিজুল ইসলাম লস্করের সাক্ষাৎকার

উজ্জ্বল রায়

বাংলা সাহিত্য হাটছে এখন উন্নয়নের দিকে। গণমাধ্যম ও ফেইসবুকে দেখা যায় অসংখ্য সাহিত্য সংগঠন। অসংখ্য গবেষক, ইতিহাসবিদ, সাহিত্য লেখক ও কবিদের যেমন আনাগোনা বাড়ছে, ঠিক তেমনিভাবে গণমাধ্যমে পরিচিত হচ্ছে ও জনপ্রিয়তা পাচ্ছে অসংখ্য লেখক ও কবি সাহিত্যিকরা। এই সময়ের তেমনি একজন জনপ্রিয় ইসলামী চিন্তাবিদ, সাহসী কলমযোদ্ধা সাংবাদিক ও উদিয়মান সাহিত্যিক কবি হাফিজুল ইসলাম লস্কর।

অনলাইন মাধ্যমে কথা হয়েছে তাহার সাথে, জানা হয়েছে অনেক অজানা বিষয়। কিভাবে তিনি আসলেন সাহিত্য জগতে? কে তাকে অনুপ্রেরনা জাগিয়েছে? জানা হয়েছে এসবকিছু। এর পাশাপাশি জানা হয়েছে তার ব্যক্তিগত পছন্দসহ নানান তথ্য কাহিনী।

হাফিজুল ইসলাম লস্করের একান্ত সাক্ষাৎকার পাঠকের উদ্দেশ্যে হুবহু তুলে ধরা হলোঃ-

উজ্জ্বল রায়ঃ

দাদা আপনি কেমন আছেন?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

জ্বী, আমি ভাল আছি। আপনি কেমন আছেন?

উজ্জ্বল রায়ঃ

ভাল আছি। আমি আপনাকে অনেকগুলা প্রশ্ন করবো? সময় দেয়া যাবে কি?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

জ্বি দেওয়া যাবে। বলুন আপনি কি জানতে চান?

উজ্জ্বল রায়ঃ

আসলে আপনার সাহিত্য নিয়ে এবং সেই সাথে ব্যক্তিগত পরিচয়?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

জ্বি করুন….?

উজ্জ্বল রায়ঃ

প্রথমে আপনার ব্যক্তিগত পরিচয় দিন?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

আমি হাফিজুল ইসলাম লস্কর।

বাবা: আলহাজ্জ মছব্বীর আলী লস্কর।

মা: আছিয়া বেগম।

আমরা আট ভাই এবং তিন বোন। আমি ভাই বোনের মাধ্যে অষ্টম।

উজ্জ্বল রায়ঃ

আপনার জন্মস্থান ও আপনি বর্তমানে কোথায় থাকেন?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

আমার জন্মস্থান সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার গোয়াসপুর গ্রামে। আমি বর্তমানে সিলেটের উপশহরে বসবাস করি।

উজ্জ্বল রায়ঃ

আপনি বর্তমানে কি করেন?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

আমি বর্তমানে একজন ছাত্র।

উজ্জ্বল রায়ঃ

পড়ালেখার পাশাপাশি, আপনি কোন কোন পেশায় বর্তমানে জড়িত?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

পড়াশোনার পাশাপাশি আমি শিক্ষকতার সাথে জড়িত এবং সাহিত্য মানে লেখালেখির কাজটা চালিয়ে যাচ্ছি। বর্তমানে “সাপ্তাহিক ইউনানী কন্ঠ পত্রিকার সম্পাদক হিসেবে কর্মরত।

উজ্জ্বল রায়ঃ

আপনি অবসর সময়ে কি করেন?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

আমি অবসর সময়ে লেখালেখি ও আড্ডা দিতে ভালবাসি।

উজ্জ্বল রায়ঃ

তার মানে আপনি সাহিত্য ভালোবাসেন। তাহলে আপনার প্রিয় বিষয় কোনটা?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

বইপড়া।

উজ্জ্বল রায়ঃ

আপনার প্রিয় লেখক বা কবি কে?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

আমার প্রিয় কবি জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম এবং জাগ্রত কবি মুহিব খাঁন।

উজ্জ্বল রায়ঃ

আপনার সাহিত্য জগতে আসার কারন কী? জানতে পারি।

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

ছোট কাল থেকে আমার লেখার প্রতি আগ্রহ ছিলো। পড়তে এবং লেখতে প্রচুর ভালোবাসতাম। আর আমার ছোট বোনের অনুপ্রেরণায় সাহিত্য জগতের সাথে জড়িয়ে পড়লাম।

উজ্জ্বল রায়ঃ

আপনার লেখা কবিতা বা আর্টিকেল দেখলাম অনেক প্রত্রিকায় প্রকাশ পেয়েছে। এগুলো কোন কোন প্রত্রিকা?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

এগুলো জাতীয় প্রত্রিকা

=> দৈনিক দিন প্রতিদিন।

এবং জেলায়

১ মেহেরপুর প্রতিদিন।

২ মেহেরপুর সাহিত্য পত্রিকা।

৩ সাপ্তাহিক ইউনানী কন্ঠ।

৪ সাপ্তাহিক গোলাপ।

তাছাড়া আরো কিছু পত্রিকা এবং অনলাইনেও প্রকাশ পেয়েছে।এগুলি হলঃ-

১ দৈনিক দেশেরবার্তা।

২ প্রজন্ম নিউজ।

৩) বিজু ফুল।

৪ মেহেরপুর সাহিত্য পরিষদ কর্তৃক প্রকাশিত ঠিকানায়।

উজ্জ্বল রায়ঃ

সেই সাথে প্রকাশ হওয়া প্রথম কবিতা ও আর্টিকেল এর নাম জানতে পারি কী?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

আমার লেখা প্রথম কবিতা “সুখ তুমি কি?“।

প্রথম আর্টিকেল “স্বার্থপরতা সামাজিক অবক্ষয়ের জন্য দায়ী”।

প্রথম ফিচার “নান্দনিক সৌন্দর্যের প্রতিচ্ছবি গোয়াসপুর”।

উজ্জ্বল রায়ঃ

আপনি শুরু থেকে আজ পর্যন্ত মোট কতটি কবিতা লিখেছেন? আর তা কিসের কারনে?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

আমার কবিতার সংখ্যা এখন ১০০ এরও বেশি কবিতা। বেশিরভাগ কবিতায় সমাজের অসংগতি তুলে ধরেছি।

উজ্জ্বল রায়ঃ

আপনার বই আকারে কোনো গল্প বা কবিতা প্রকাশ আছে কী?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

আমার একক কোন বই নেই। তবে বেশ কয়েকটি ম্যাগাজিনে আমার লেখা প্রকাশিত হয়েছে।

উজ্জ্বল রায়ঃ

আগামীতে বই নিয়ে আপনার পরিকল্পনা কী?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

আমার স্বপ্ন আমি এই বছর তথা ২০২১ সালের শেষ দিকে একক বই বের করবো। যদি আল্লাহ তাওফিক দেয়।

উজ্জ্বল রায়ঃ

আপনার বাবা-মা কি করেন?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

আমার বাবা ২০২০ সালের রামাদ্বানে ইন্তেকাল করেছেন। আর আমার মা গৃহিণী।

উজ্জ্বল রায়ঃ

আপনি ব্যক্তিগত জীবনে কাউকে পছন্দ করেন?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

না তেমন কেউ নাই।

উজ্জ্বল রায়ঃ

আপনি কোথায় পড়াশুনা করেন?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

আমি সিলেটের এতিহ্যবাহী কওমী মাদ্রাসা "ঢাকা উত্তর রানাপিং আরাবিয়া মাদ্রাসা" থেকে হিফজ ও তাকমিল ফিল হাদিছ অধ্যায়ন সমাপ্ত করি। পাশাপাশি বর্তমানে দক্ষিন সুরমা ডিগ্রি কলেজে বিএসএস ফাইনাল ইয়ার অধ্যায়নরত।

উজ্জ্বল রায়ঃ

যারা নব্য লেখক ও কবি হতে চায়। আপনি তাদের ব্যাপারে সাহিত্য নিয়ে কি কি পরামর্শ দিবেন?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

আমি নিজেও একজন নব্য লেখক। আমি আমার অগ্রজ কবি এবং কবি বন্ধুদের কাছ থেকে যে উপদেশটি মেনে চলি আমিও তাই করতে বলবো।

বেশি বেশি বই পড়া এবং নতুন নতুন শব্দ খোঁজ করা।

উজ্জ্বল রায়ঃ

আজকাল প্রায়শই শুনা যায় লেখা চুরি হচ্ছে। তো যারা অন্যের লেখা চুরি করে নিজের নামে চালিয়ে দেয়। তাদের ব্যাপারে আপনি কি বলতে চান?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

লেখা চুরি করে লেখা কোনো কবি ব্যাক্তির কাজ নয়। কিছু অলস কবি আছে যারা অন্যের কবিতা কপি করে নিজের নামে চালিয়ে দিচ্ছে। আসলে তাকে কবি বলা যাবেনা। আর সৃজনশীল কাজ বের করাই কবি ব্যাক্তির কাজ। কবিতা চুরি করে সে কখনোই বেশি দূর যেতে পারবেনা। তাই কবিতা চুরি না করে কবি দৃষ্টি দিয়ে সব ভাবনা করা উচিৎ।

উজ্জ্বল রায়ঃ

এদের বিরুদ্ধে কি রকম আইনি ব্যবস্থা নেওয়া উচিত বলে, আপনি মনে করেন?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

জ্বি নেওয়া দরকার। এদের বিরুদ্ধে কপিরাইট আইনে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া দরকার। কারন তারা একজনের সৃজনশীল কাজ নিজের দাবী করে বাজারে বিক্রি করছে।

উজ্জ্বল রায়ঃ

আপনি বর্তমানে কোনো লেখক সংগঠনে আছেন কি? থাকলে সেটা কোন পদে?

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ

আমি বর্তমানে “বঙ্গবন্ধু লেখক সাংবাদিক ফোরাম" সিলেটের সাথে যুক্ত আছি। এখানে আমার অবস্থান সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে। এবং আরেকটি হলো “বিওআরসি" সিলেট জেলার সাধারন সম্পাদক হিসেবে নিযুক্ত।

উজ্জ্বল রায়ঃ

অসংখ্য ধন্যবাদ হাফিজুল ইসলাম লস্কর আপনাকে। অনেক ব্যস্ততার পরেও আমাকে সময় দেওয়ার জন্য। শুভ কামনা রইলো আপনার প্রতি।

হাফিজুল ইসলাম লস্করঃ আপনার প্রতিও কৃতজ্ঞতা রইলো প্রিয় “সাংবাদিক উজ্জ্বল রায়।