লাইফ স্টাইল ৩ মার্চ, ২০২৩ ০৯:৩৭

ইয়ারফোন ব্যবহারে কানের ক্ষতি হয়!

নিজস্ব প্রতিবেদক : সিনেমা দেখা বা গান শোনার জন্য হরহামেশাই আমরা হেডফোন বা ইয়ারফোন ব্যবহার করি। নির্দিষ্ট কিছু নিয়ম না মেনে যদি এই যন্ত্র ব্যবহার করেন, তবে শ্রবণশক্তির উপর কোন প্রভাব পড়বে না। জেনে নিন কানের ক্ষতি হওয়ার ঝুঁকি কমিয়ে কীভাবে ইয়ারফোন ব্যবহার করবেন। 

উচ্চ শব্দে কিছু শোনা কানের জন্য ক্ষতিকর। এতে কানের সংবেদনশীল নার্ভগুলো ধীরে ধীরে ড্যামেজ হতে থাকে। তাই খুব জোরে সাউন্ড দিয়ে ইয়ারফোন ব্যবহার করবেন না। হঠাৎ করে খুব জোরে আওয়াজ হলেও কান ক্ষতিগ্রস্ত হয়। স্বাভাবিক ভলিউমে ইয়ারফোন ব্যবহার করলে কানের তেমন কোনও ক্ষতির সম্ভাবনাই নেই। 

দীর্ঘ সময়ের জন্য ইয়ারফোন ব্যবহার করবেন না। এতে চাপ পড়ে শ্রবণশক্তির উপর। কাজের প্রয়োজনে দীর্ঘক্ষণ ইয়ারফোন ব্যবহার করতে হলে ঘণ্টাখানেক পর খুলে ছোট্ট বিরতি নিয়ে নিন। 

ইয়ারফোন যেন ভালো মানের হয়। সবচেয়ে ভালো হয় যে প্রতিষ্ঠানে স্মার্টফোন ব্যবহার করছেন, ইয়ারফোনও যদি সেই একই প্রতিষ্ঠানের হয়। এতে যেমন শব্দ ভালো পাওয়া যায়, তেমনি কানের ক্ষতির আশংকাও কমে। কানের খুব ভেতরে জোরে চাপ দিয়ে ইয়ারফোন ঢুকিয়ে কিছু শুনবেন না। বেশকিছু স্মার্টফোনে নির্দিষ্ট মাত্রার উপরে ভলিউম দিলে ওয়ার্নিং দেওয়া হয়। মেনে চলুন এই ওয়ার্নিং।  অন্যের ইয়ারফোন ব্যবহার না করাই শ্রেয়। এতে কানে ব্যাকটেরিয়া ছড়িয়ে পড়তে পারে।  

আশেপাশের আওয়াজ থেকে বাঁচতে সর্বোচ্চ সাউন্ডে ইয়ারফোন ব্যবহার না করে শব্দ নিরোধক ইয়ারফোন ব্যবহার করুন। ইয়ারফোন নিয়মিত পরিষ্কার করবেন। ইয়ারফোন যেখানে সেখানে না রেখে নির্দিষ্ট ব্যাগে গুছিয়ে রাখুন। 

আমাদেরকাগজ/ এইচকে