সারাদেশ ২১ মার্চ, ২০২৩ ০৫:০৯

পর্তুগাল প্রবাসীর বিয়ের পিঁড়িতে বসা হলো না!

নিজস্ব প্রতিবেদক : সিলেটের গোলাপগঞ্জের পর্তুগাল প্রবাসী সুহেদ আহমদের দেশে এসে বিয়ের পিঁড়িতে বসা হলো না। দেশে আগেই চলে গেলেন না ফেরার দেশে।  সোমবার কনস্ট্রাকশনের কাজ করার সময় দুর্ঘটনায় মারা যান সুহেদ।  তার আকস্মিক এ মৃত্যুর খবর  তার গ্রামের বাড়িতে এসে পৌঁছিলে শোকে মুহ্যমান হয়ে পড়েন পরিবারের লোকজন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, উপজেলার লক্ষণাবন্দ ইউনিয়নের করগাও উজানপড়া গ্রামের সুহেদ আহমদ ২০১৯ সালে প্রথমে পাড়ি জমান দুবাইয়ে।  সেখানে কিছু দিন থাকার পর উন্নত জীনবযাপনের জন্য পাড়ি জমান পর্তুগালে।  সেখানে গিয়ে তিনি শুরু করেন কনস্ট্রাকশনের কাজ।  দীর্ঘদিন থেকে তিনি এ কাজ করছিলেন।  

সোমবার পর্তুগালের ভেজা এলাকায় কাজ করার সময় দুর্ঘটনায় মারা যান তিনি।  তার আকস্মিক মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় নেমে আসে শোকের ছায়া।  নিহত সুহেদ মিয়ার দেশে এসে বিয়ে করার কথা ছিল।  পরিবারের লোকজন তার জন্য মেয়ে দেখাশোনা করছিলেন।  সুহেদ মিয়া ৬ ভাই ও ২ বোনের মধ্যে চতুর্থ ছিলেন। 

লক্ষণাবন্দ ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান খলকুর রহমান মঙ্গলবার বলেন, ঘটনাটি আমি শুনেছি।  সুহেদ মিয়া কাজ করার সময় মারা গেছেন। 

নিহতের ছোট ভাই শিপু আহমদ বলেন, আমার ভাই দেশে আসার কথা ছিল।  দেশে এসে বিয়ে করার কথাবার্তা চলছিল। কিন্ত সোমবার আমার ভাই পর্তুগালে কাজ করার সময় মারা যান।  আমাদের স্বপ্ন তছনছ হয়ে গেল।

আমাদেরকাগজ/ এইচকে