আন্তর্জাতিক ২ এপ্রিল, ২০২৩ ০৭:১৫

ছয় স্ত্রীকে নিয়ে বসবাস, আইনগতভাবে তার স্ত্রী মাত্র একজনই ! 

ছবি - সংগৃহীত

ছবি - সংগৃহীত

আমাদের কাগজ ডেস্কঃ ছয় স্ত্রীকে নিয়ে এক বাড়িতে থাকেন ব্রাজিলের এক যুবক। স্ত্রী ছয়জন থাকলেও আইনগতভাবে তার স্ত্রী মাত্র একজনই রয়েছে। কারণ ব্রাজিলে একের অধিক বিয়ে করার বিধান নেই। মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউইয়র্ক পোস্ট রোববার (২৯ মার্চ) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।  

শুধু তাই নয় তিনি চান প্রত্যেক স্ত্রীর সঙ্গে একটি করে সন্তান থাকবে তার। 

ব্রাজিলের ওই যুবকের নাম আর্থার ও উরসো। ২৭ বছর বয়সী উরসোর ভাগ্যবান স্ত্রীরা হলেন— লুয়ানা কাজাকি (২৭), এমিলি সউজা (২১), ভালকুইরা সান্তোস (২৪), ওলিন্ডা মারিয়া (৫১), দামিয়ানা (২৩) এবং আমান্দা আলবুকারুক (২৮)। তবে একসঙ্গে তো নিজের ছয় স্ত্রীকে গর্ভবতী করতে পারবেন না উরসো। তাই ছয় স্ত্রীর কাছ থেকে সন্তান পেতে সারোগেসি পন্থা বেঁছে নেওয়ার কথা জানিয়েছেন তিনি।

এ ব্যাপারে উরসো বলেছেন, ‘কোন স্ত্রী আগে গর্ভবতী হবেন সেটি নির্দিষ্ট করে আমার কোনো স্ত্রীকেই কষ্ট দিতে চাই না। এ কারণে আমরা সারোগেসিকে বেঁছে নিয়েছি। জানা যায়, সারোগেসির প্রক্রিয়াটি নিজের প্রথম স্ত্রী লুয়ানাকে দিয়ে শুরু করতে চান তিনি। তবে তার স্ত্রীদের কেউই প্রথমে সারোগেসির বিষয়ে রাজি হননি। 

তিনি বলেছেন, ‘শুরুতে এটি খুবই সূক্ষ একটি বিষয় ছিল। বিশেষ করে আমি তাদের প্রত্যেকের সঙ্গে সন্তান চেয়েছিলাম। এখন সব পরিকল্পনা অনুযায়ী দ্রুত চলছে।’

তিনি জানিয়েছেন, এ সারোগেসির পেছনে ৪০ হাজারেরও বেশি ডলার খরচ হবে তার। তবে সারোগেসির মাধ্যমে এর আগে কখনো সন্তান না নেওয়ায় এ বিষয়ে কিছুটা চিন্তিত।

আরও জানা যায়, তবে সরকারি খাতায় স্ত্রী হিসেবে মাত্র একজনের নাম লিখতে পারলেও বাকি পাঁচজনকে চার্চে গিয়ে বিয়ে করেছেন তিনি। এদিকে জানা গেছে আর্থারের একটা সময় ৯জন স্ত্রী ছিলেন। কিন্তু এরমধ্যে চারজনকে তিনি ডিভোর্স দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, আর্থার ও তার স্ত্রীরা জীবিকানির্বাহ করেন একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে। সেখানে নিজেদের গোপন ভিডিও দেন তারা। 

আমাদের কাগজ/এমটি