সারাদেশ ১৩ আগস্ট, ২০২৩ ০৯:২২

হাসপাতাল থেকে সন্তান চুরি, থামছে না মায়ের কান্না

কুমিল্লা প্রতিনিধি: কুমিল্লা সদর হাসপাতালের টিকিট কাউন্টারের সামনে থেকে ৩ দিনের এক নবজাতক চুরির ঘটনায় নবজাতকের বাবা জসীম উদ্দিন বাদী হয়ে কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানায় অজ্ঞাত চোরের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। এদিকে সন্তানকে হারিয়ে পাগলপ্রায় মা আয়েশা আক্তার। সন্তানের জন্য তিন দিন ধরে কান্না করেই চলছেন তিনি।

জসীম উদ্দিন জেলার কোতোয়ালি থানা এলাকার বারোপাড়া এলাকার মৃত আব্দুর রশিদের ছেলে। তিনি কুমিল্লা ইপিজেডে একটি গার্মেন্টসে চাকরি করেন। 

জসীম উদ্দিন অভিযোগে উল্লেখ করেন, গত বৃহস্পতিবার (১০ আগস্ট) তার স্ত্রী আয়েশা আক্তার সদর হাসপাতালে একটি মেয়ে শিশুর জন্ম দেয়। সেদিন থেকেই তারা সদর হাসপাতালেই আছে। রোববার (১৩ আগস্ট) গাইনি চিকিৎসক দেখানোর জন্য তার শাশুড়ি টিকিট কাউন্টারে আসে। সেখানে বোরকা পরিহিত এক নারী শাশুড়িকে বলে নবজাতককে তার কোলে দেওয়ার জন্য। এ কথা শুনে বিশ্বাস করে শাশুড়িও তার কোলে নবজাতককে দিয়ে দেন। এরপর বোরকা পরিহিত ওই নারী নবজাতককে নিয়ে পালিয়ে যান। এ ঘটনায় তোলপাড় চলছে কুমিল্লা সদর হাসপাতালে।

কুমিল্লা সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার আব্দুল করিম খন্দকার জানান, হাসপাতালের ওয়ার্ডের ভেতর থেকে নবজাতক খোয়া যায়নি। বাইরের ক্যাম্পাসে নবজাতক স্বজনদের কাছেই ছিল। এটা চুরি কীনা বলা কঠিন। এ নিয়ে কাজ করছে পুলিশ। তদন্ত করে তারাই বলতে পারবে। 

কুমিল্লার পুলিশ সুপার আব্দুল মান্নান গণমাধ্যমে জানিয়েছেন, কোতোয়ালি থানা পুলিশের পরিদর্শক তদন্ত ত্রিনাথ সাহা ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশসহ (ডিবি) একাধিক টিম কাজ করছে। সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। যত দ্রুত সম্ভব আমরা নবজাতককে উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছি।

আমাদেরকাগজ/এইচএম