লাইফ স্টাইল ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ ১২:০৫

মাসের ১০ টি অভ্যাস আপনার হাত কখনো ফাঁকা রাখবে না

আমাদের কাগজ ডেস্ক: মাসের শুরুতে টাকার দেখা মিললেও মাস শেষ হবার আগেই হাত ফাঁকা। বর্তমান বাজার পরিস্থিতিতে বিবেচনা করলে এমনটা হওয়া স্বাভাবিক। তবে কিছু অভ‍্যাস বা নিয়ম আছে, যা আপনাকে এমন পরিস্থিতি মোকাবিলায় সাহায্য করতে পারে... 

সঞ্চয় করার অভ্যাস তৈরি করুন। যাঁরা চাকরি করছেন তাঁদের জন্য সঞ্চয় করা সহজ। এ ছাড়া যাঁরা ব্যবসা করেন, ফ্রিল্যান্সিং করেন তাঁদেরও সঞ্চয় করা উচিত। সঞ্চয় আসলে সবার জন্যই। 

এর বাইরে আরও ১০ পরামর্শ

 

১. খুচরা পয়সা সঞ্চয়ের অভ্যাস করুন

অবজ্ঞা না করে খুচরা পয়সা সঞ্চয়ের অভ্যাস করুন। একটা সময় পর দেখবেন আপনার জমানো খুচরা পয়সা আপনাকে অনেক সাহায্য করবে। বিন্দু বিন্দু করে সিন্ধু করতে চাইলে দেরি না করে আজকে থেকেই শুরু করুন।


২. নিজের জন্য খরচ করুন

কোন জিনিস কম দরকার,কোন জিনিস সেটি নির্ণয়ের ক্ষমতা থাকতে হবে। বাড়তি খরচ কমাতে হবে। 


৩. বিজ্ঞাপনে ভুলবেন না

ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানে সঞ্চয়ের জন্য প্রথমে ভেবে নিন আপনি কীভাবে সঞ্চয় করতে চান, কত দিনের জন্য সঞ্চয় করবেন, কত টাকা করে সঞ্চয় করবেন। আপনার পাওয়া বেতনের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে তারপর ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে খোঁজ নিন। ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনে ভুলবেন না। প্রকৃত অবস্থার খোঁজ নিন নিজে। তারপরে সেদিকে ঝুঁকুন। 

৪. পরামর্শ নিন অভিজ্ঞদের

আপনার সহকর্মী অথবা বয়সে বড় লোকদের পরামর্শ নিন। প্রয়োজনে কোন সেবাটি আপনি নেবেন সে ব্যাপারে অভিজ্ঞ কারও পরামর্শ নিন। যাতে ভুল পরিকল্পনার মাধ্যমে আপনার বড় ভুল না হয়ে যায়। 

৫. জরুরি সময়ের জন‍্য জমান

টাকা সবারই দরকার। তাই খরচ যখন কম তখন জমান। যাতে খরচ বাড়লে জমা টাকা থেকে নিয়ে কাজে লাগাতে পারেন। 
প্রতি মাসে কিছু করে টাকা জমান। এই টাকা আপনার ব্যাংকে রাখা টাকার বাইরে রাখুন। খুব জরুরি প্রয়োজনেই শুধু এই টাকা খরচ করুন। এতে ব্যাংকে রাখা টাকায় হাত দিতে হবে না।

৬. প্রতি মাসের বাজেট তৈরি করুন

প্রতি মাসে একটি বাজেট তৈরি করুন। মাসে কত টাকা লাগতে পারে আপনার। মাসের প্রথম দিন থেকে এ বাজেট অনুসরণ করুন। বাজেটের বাইরে প্রয়োজন না হলে টাকা খরচ করবেন না।

৭. স্বল্পকালীন সঞ্চয়ের পরিকল্পনা করুন

স্বল্পকালীন সঞ্চয়ের পরিকল্পনা করুন। স্বল্পকালীন এ সঞ্চয় আপনাকে এককালীন বেশ ভালো পরিমাণ টাকা দেবে। সেই টাকা একসঙ্গে করে দীর্ঘ মেয়াদে সঞ্চয়ের চিন্তা করতে পারেন। কিন্তু স্বল্পকালীন সঞ্চয় বন্ধ করবেন না। কারণ অল্প অল্প করে জমানোর অভ্যাস আপনাকে দীর্ঘস্থায়ী সঞ্চয় প্রবণতা সৃষ্ট হবে 

৮. সমমনাদের সঙ্গে সঞ্চয়

যে প্রতিষ্ঠানে চাকরি করছেন সেখানে আপনার সমমানসিকতার সহকর্মীদের একত্রিত করে প্রতি মাসে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ কোনো ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানে সঞ্চয় করতে থাকুন। প্রতিষ্ঠানের বাইরে এভাবে আপনার বন্ধুদের সঙ্গেও সঞ্চয় করতে পারেন। পকেটে টাকা থাকলে খরচ করতে ইচ্ছে হবে এটা স্বাভাবিক। তবে সঞ্চয় করে রাখলে বিপদে সেটি আপনাকে সহয়তা করবে। 


৯. মূল সঞ্চয়ের বাইরেও কিছু টাকা রাখুন

বিশ্বের ধনীদের অন্যতম ওয়ারেন বাফেট বলেছিলেন, ‘আপনার সব ডিম এক ঝুড়িতে রাখবেন না।’ এ কথাকে মেনে বিভিন্নভাবে সঞ্চয় করুন। বিভিন্নভাবে সঞ্চয় মানে কিন্তু একাধিক ব্যাংকে টাকা জমানো নয়। প্রতি মাসে আপনার মূল সঞ্চয়ের বাইরেও কিছু টাকা রেখে দিন আপনার কাছে। এ টাকা খরচ করবেন না। 

১০. জীবনযাপনের ধরন পরিবর্তন করুন

হ্যাঁ, জীবন মাত্রার পরিবর্তন খুবই জরুরি। নইলে আপনি সঞ্চয় করতে পারবেন না। মনে রাখবেন, আপনি যদি চাকুরীজীবী হন তাহলে আপনার কর্মপরিকল্পনা অন্যদের চেয়ে আলাদা হতে হবে।সঠিক পরিকল্পনা ও দীর্ঘ স্থায়ী সু-পরিকল্পনা রাখতে হবে। আগের মতো চললে প্রচুর খরচ হতে থাকবে এবং মাস শেষে আপনার হাতে প্রায় কিছুই থাকবে না।  

আমাদেরকাগজ/এমটি