আন্তর্জাতিক ১০ অক্টোবর, ২০২৩ ১২:৪৮

চলমান সংঘাতে ইসরায়েলে ৯০০ ও গাজায় প্রায় ৭০০ ফিলিস্তিনি নিহত

ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সংঘাত নিয়ে যা বললেন সৌদির যুবরাজ 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ফিলিস্তিনির স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস গত শনিবার ইসরায়েলে নজিরবিহীন হামলা চালায়। জবাবে পাল্টা হামলা চালায় ইসরায়েল। এতে দুই পক্ষে রক্তক্ষয়ী সংঘাতে মধ্যে দিয়ে পাড় করছে এই দুই দেশ। 

এবার তাদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রেখেছে সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান।তিনি বলেছেন, তিনি ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সংঘাতের বিস্তাররোধে কাজ করছেন। ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসকে এ কথা বলেছেন সৌদি আরবের কার্যত শাসক মোহাম্মদ বিন সালমান। সৌদির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম আজ মঙ্গলবার এ তথ্য জানিয়েছে।

সৌদি প্রেস এজেন্সির খবরে বলা হয়, মাহমুদ আব্বাসকে মোহাম্মদ বিন সালমান আরও বলেছেন, ফিলিস্তিনি জনগণের একটি যথোপযুক্ত জীবনযাপনের বৈধ অধিকার অর্জন, তাঁদের আশা-আকাঙ্ক্ষার অর্জন ও ন্যায়সংগত, স্থায়ী শান্তি অর্জনের জন্য তাঁদের পাশে থাকবে রিয়াদ। 

উল্লেখ্য, চলমান সংঘাতে এখন পর্যন্ত প্রায় ৯০০ ইসরায়েলি নিহত হয়েছেন। গাজায় নিহত হয়েছেন প্রায় ৭০০ ফিলিস্তিনি। উভয় পক্ষে আহত হয়েছেন হাজারো ব্যক্তি।

মোহাম্মদ বিন সালমান বলেছিলেন, ‘আমাদের এ অংশের সমাধান করতে হবে। আমাদের ফিলিস্তিনিদের জীবনকে সহজ করতে হবে।’

বিশ্লেষকেরা বলছেন, চলমান সংঘাতে ইসরায়েলের সঙ্গে সৌদি আরবের সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণের বিষয়টি মারাত্মক ধাক্কার মুখে পড়েছে।

ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সংকট নিয়ে মোহাম্মদ বিন সালমান মিসরের প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ আল-সিসি ও জর্ডানের বাদশা দ্বিতীয় আবদুল্লাহর সঙ্গেও ফোনে কথা বলেছেন। সৌদি প্রেস এজেন্সি এ তথ্য জানিয়েছে।

ইসরায়েলকে এখন পর্যন্ত স্বীকৃতি দেয়নি সৌদি আরব। তবে একটি চুক্তির অংশ হিসেবে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে সৌদি আরব রাজি হতে যাচ্ছে বলে কথা ছড়িয়েছে। এমন প্রেক্ষাপটে ফিলিস্তিন-ইসরায়েলের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘাত শুরু হলো।

আমাদেরকাগজ(এমটি)