জাতীয় ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ০৪:০৪

আগামী সপ্তাহে সংরক্ষিত নারী আসনের তফসিল

নিজস্ব প্রতিবেদক
দ্বাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের নির্বাচনের তফসিল হতে পারে আগামী সপ্তাহে। আইন অনুযায়ী সাধারণ নির্বাচনের ফলাফলের গেজেট প্রকাশের ৯০ দিনের মধ্যে নারী আসনের নির্বাচন করতে হবে। গত ৯ জানুয়ারি গেজেট হওয়ায় ৮ এপ্রিলের মধ্যে সংরক্ষিত নারী আসনের ভোট করতে হবে নির্বাচন কমিশনকে (ইসি)। আর এ লক্ষ্যে আগামী সপ্তাহের যেকোনো দিন এই নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করতে পারে কমিশন।

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ এমনটাই জানালেন। তিনি বলেন, ‘কমিশন অনুমতি দিলে আগামী সপ্তাহের যেকোনো দিন সংরক্ষিত নারী আসনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।’

এরই মধ্যে সংসদ সচিবালয়ের আইন শাখা থেকে শপথ নেওয়া ২৯৯ জনের তালিকা নির্বাচন কমিশনে পাঠানো হয়েছে। শপথ নেওয়া প্রার্থীরাই সংরক্ষিত মহিলা আসনের নির্বাচনের ভোটার। বর্তমানে সংরক্ষিত মহিলা আসনসংখ্যা ৫০।

দ্বাদশ সংসদের নির্বাচিত স্বতন্ত্র এমপিরা আওয়ামী জোটকে সমর্থন দেওয়ায় তফসিলের পর প্রার্থী মনোনয়ন ও যাচাই-বাছাইয়ে আনুষ্ঠানিকতা থাকলেও এই নির্বাচনে এবার ব্যালট ছাপানো ও ভোট অনুষ্ঠানের প্রয়োজন হবে না। কারণ দল এবং জোট কারও পক্ষেই নির্ধারিত সংখ্যক আসনের বেশি প্রার্থী মনোনয়ন দেওয়া সম্ভব হবে না। তবে তফসিল ঘোষণার পর নিয়ম অনুযায়ী সংরক্ষিত মহিলা আসনের জন্য মনোনীত প্রার্থীদের আবেদন যাচাই-বাছাই, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারসহ বাকি নির্বাচনের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করবে নির্বাচন কমিশন। তারপর যাচাই-বাছাইয়ে টিকে যাওয়া আওয়ামী লীগের ৩৮ জন, স্বতন্ত্রদের (এরাও আওয়ামী লীগকে দায়িত্ব দিয়েছেন প্রার্থী বাছাইয়ে) প্রাপ্য ১০ জন ও জাতীয় পার্টির ২ জন চূড়ান্ত প্রার্থীকে সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি হিসেবে বিজয়ী ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশ করবে ইসি।

জাতীয় সংসদ (সংরক্ষিত মহিলা আসন) নির্বাচন আইন ২০০৪ অনুযায়ী, সংসদ নির্বাচনের চূড়ান্ত ফলাফলের সরকারি গেজেট প্রকাশের পর ৯০ দিনের মধ্যে সংরক্ষিত মহিলা আসনে নির্বাচন অনুষ্ঠানের আইনি বাধ্যবাধকতা রয়েছে। গত ৯ জানুয়ারি দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে বিজয়ীদের গেজেট প্রকাশ হওয়ায় আগামী ৮ এপ্রিলের মধ্যে এই নির্বাচন সম্পন্ন করতে হবে।