আন্তর্জাতিক ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ০৮:৩০

হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে চিলির সাবেক প্রেসিডেন্ট নিহত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ চিলির সাবেক প্রেসিডেন্ট সেবাস্তিয়ান পিনেরা নিহত হয়েছেন। তিনি দুই মেয়াদে দেশটির প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। একইসঙ্গে একজন বিলিয়নেয়ার ব্যবসায়ীও ছিলেন তিনি।

বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চিলির সাবেক প্রেসিডেন্ট সেবাস্তিয়ান পিনেরা ৭৪ বছর বয়সে হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর লাগো র‍্যাঙ্কোর কাছে একটি হ্রদে হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হয়। তবে দুর্ঘটনার পর এর অন্য তিনজন আরোহী বেঁচে গেছেন।

বিবিসি বলছে, পিনেরা তার নিজের হেলিকপ্টারটি উড়িয়েছিলেন। তবে দুর্ঘটনার সময় তিনি পাইলটের আসনে ছিলেন এমন কোনও তথ্য এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে নিশ্চিত করা হয়নি। এই দুর্ঘটনা ও প্রাণহানির ঘটনায় জাতীয় শোক ঘোষণা করা হয়েছে এবং লাতিন আমেরিকার নানা রাজনৈতিক মঞ্চ ভেদে তার প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়েছে।

রক্ষণশীল রাজনীতিবিদ সেবাস্তিয়ান পিনেরা ২০১০ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত প্রথম মেয়াদে চিলির প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। এসময় দেশের দ্রুত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির জন্য তাকে কৃতিত্ব দেওয়া হয়েছিল।

আর বিদেশে তিনি সম্ভবত ২০১০ সালে আতাকামা মরুভূমির নিচে ৬৯ দিন ধরে আটকে থাকা ৩৩ জন খনি শ্রমিকের উদ্ধার তদারকির জন্য সবচেয়ে বেশি পরিচিত ছিলেন। সেসময় এই ঘটনাটি বিশ্বকে কার্যত আঁকড়ে ধরেছিল।

তবে পিনেরার দ্বিতীয় মেয়াদ ছিল ২০১৮ সাল থেকে গত বছর পর্যন্ত। তার এই দ্বিতীয় মেয়াদে দক্ষিণ আমেরিকার এই দেশটি সহিংস সামাজিক অস্থিরতার জেরে ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

বিবিসি বলছে, হেলিকপ্টার দুর্ঘটনার পর চিলির নৌবাহিনী এমন অঞ্চল থেকে সেবাস্তিয়ান পিনেরার মৃতদেহ উদ্ধার করে যেখানে তিনি প্রতি ফেব্রুয়ারিতে তার পরিবারের সাথে ছুটি কাটাতেন বলে স্প্যানিশ সংবাদপত্র এল পাইস জানিয়েছে।

এদিকে তিন দিনের শোক ঘোষণা এবং রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া ঘোষণা করে চিলির প্রেসিডেন্ট ও পিনেরার বামপন্থি উত্তরসূরি গ্যাব্রিয়েল বোরিক পিনেরার প্রতি উষ্ণ শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘আমরা সবাই চিলি এবং আমাদের এটিই স্বপ্ন দেখা উচিত। সেই স্বপ্ন মনে আঁকুন এবং একসাথে বাস্তবায়ন করা উচিত। সেবাস্তিয়ান পিনেরা যখন ২০১৮ সালের ১১ মার্চ দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন তখন এই কথাই বলেছিলেন। আমরা এই কঠিন সময়ে তার পরিবার এবং প্রিয়জনদের পাশে আছি।’

এদিকে ব্রাজিলের বামপন্থি প্রেসিডেন্ট লুইজ ইনাসিও লুলা দা সিলভা বলেছেন, পিনেরার মৃত্যুতে তিনি ‘বিস্মিত ও দুঃখিত’।

সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এক্সে তিনি লিখেছেন, ‘আমরা একসাথে ছিলাম, আমরা আমাদের দেশের মধ্যে সম্পর্ক জোরদার করার জন্য কাজ করেছি এবং যখন আমরা উভয়ই প্রেসিডেন্ট ছিলাম এবং যখন ছিলাম না তখনও আমরা সবসময় নিজেদের মধ্যে ভালো সংলাপ করেছি।’

আর্জেন্টিনার সাবেক রক্ষণশীল প্রেসিডেন্ট মাউরিসিও ম্যাক্রি বলেছেন, পিনেরার মৃত্যু একটি ‘অপূরণীয় ক্ষতি’ এবং এই ঘটনায় তিনি ‘অত্যন্ত দুঃখ’ অনুভব করেছেন। অন্যদিকে কলম্বিয়ার সাবেক রক্ষণশীল প্রেসিডেন্ট ইভান ডুক বলেছেন, তিনি তার বন্ধুর মৃত্যুতে খুব দুঃখ অনুভব করেছেন।

উল্লেখ্য, ১৯৯০ সালে সামরিক শাসনের অবসানের পর ২০১০ সালে সেবাস্তিয়ান পিনেরা চিলির প্রথম রক্ষণশীল প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছিলেন।