বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি ১১ নভেম্বর, ২০১৯ ০৭:৪৬

গুগলের পর এবার মাইক্রোসফটের কোয়ান্টাম কম্পিউটার

ডেস্ক রিপোর্ট।।

দিন কয়েক আগেই ‘কোয়ান্টাম সুপ্রিমেসি’ দাবি করেছে গুগল। সাধারণ কম্পিউটারে যে কাজ সারতে ১০ হাজার বছর লেগে যেত, গুগল দাবি করেছে, তাদের কোয়ান্টাম কম্পিউটার সে কাজ ২০০ সেকেন্ডে করে দেখিয়েছে। এদিকে মাইক্রোসফটও এমন কম্পিউটার নিয়ে গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছে। তবে তারা কিউবিটের কাজের পদ্ধতি বদলে এগোনোর চেষ্টা করছে।

প্রতিষ্ঠানটির দাবি, সফল হলে শুধু তাত্ত্বিক নয়, বাস্তব সমস্যা সমাধানেও তা কাজে লাগানো যাবে।

মাইক্রোসফটের গবেষণার মূলে রয়েছে টপোলজিক্যাল কিউবিট। পাঁচ বছর ধরে তারা এ নিয়ে গবেষণা করছে। এখন সেটি ব্যবহারের জন্য প্রস্তুত বলে গত বৃহস্পতিবার আইইইই ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন রিবুটিং কম্পিউটিং সম্মেলনে দাবি করেছেন মাইক্রোসফটের কোয়ান্টাম কম্পিউটিং বিভাগের মহাব্যবস্থাপক ক্রিসটা সভর।

কোয়ান্টাম কম্পিউটারের কাজের ধরন জটিল। তৈরি যেমন কঠিন, প্রোগ্রাম তৈরি করে ব্যবহারও সহজ নয়। কাজ করে মহাশূন্যের চেয়েও শীতল পরিবেশে। তবে কোয়ান্টাম কম্পিউটারে এমন কাজ করা যাবে সাধারণ কম্পিউটারে, যা সম্ভব নয়। আরও কার্যকর উপায়ে রাসায়নিক সার তৈরি কিংবা যানজটের সময় দ্রুততম পথ খুঁজে বের করার মতো উদাহরণের উল্লেখ করেন ক্রিস্টা।

সূত্র: সিনেট