বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি ৩০ নভেম্বর, ২০১৯ ১২:১৪

হিটলারের প্রচারেও ফেসবুক!

ডেস্ক রিপোর্ট 

সন্ত্রাসী, উগ্রপন্থি ও জাতিবিদ্বেষীরা সহজেই ফেসবুক ব্যবহার করছে। ফেসবুক পোস্টে উস্কে দেওয়ায় ঘৃণার কারণে অনেক অঘটন ও সংঘাত ঘটছে। তারপরও তাতে যথাযথ নিয়ন্ত্রণ আরোপ করছে না বিশ্বের জনপ্রিয় এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কর্তৃপক্ষ। 

বিষয়টির কড়া সমালোচনা করে এর বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন ব্রিটিশ অভিনেতা সাশা ব্যারন কোহেন। 

তিনি বলেছেন, ঘৃণা ছড়াতে হিটলারকেও বিজ্ঞাপন প্রচার করতে দিত ফেসবুক।

'ডিক্টেটর', 'আলি জি' চলচ্চিত্রের জন্য তারকাখ্যাতি অর্জন করেছেন সাশা ব্যারন কোহেন। ব্রিটিশ কমেডিয়ান কোহেন বলেছেন, '১৯৩০-এর দশকে যদি ফেসবুক থাকত তাহলে তারা হিটলারকে তার ইহুদি বিদ্বেষী ধ্যান-ধারণা প্রচারের একটি প্ল্যাটফর্ম তৈরি করে দিত।' 

সম্প্রতি নিউইয়র্কে এক ভাষণে ফেসবুকের এমন সমালোচনা করেন তিনি। পাশাপাশি গুগল, টুইটার ও ইউটিউবের সমালোচনা করে কোহেন বলেন, তারা কোটি কোটি মানুষের মধ্যে অস্বাভাবিক বিষয়বস্তুর জনপ্রিয়তা বাড়ানোর চেষ্টা করছে। 

রাজনৈতিক প্রচারণাকে কেন্দ্র করে ভুল তথ্য যেন না ছড়ানো হয়, তা নিশ্চিত করতে ইন্টারনেট প্রতিষ্ঠান ও সোশ্যাল মিডিয়া প্রতিষ্ঠানগুলো চাপের মধ্যে রয়েছে। অক্টোবরের শেষদিকে টুইটার ঘোষণা দেয়, ২২ নভেম্বর থেকে তারা বিশ্বব্যাপী রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন প্রচার করা থেকে বিরত থাকবে।

চলতি সপ্তাহের শুরুতে গুগল দাবি করেছে, ব্যক্তির সার্চ হিস্ট্রি বা ইন্টারনেট ব্রাউজিংয়ের তথ্যের ওপর ভিত্তি করে ওই ব্যক্তির জন্য বিশেষায়িত বিজ্ঞাপন যেন রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনদাতারা তৈরি না করে, তা নিশ্চিত করবে তারা।

বিশ্লেষকদের মতে, এ রকম কিছু আইন মানার ব্যাপারে ব্যাপক চাপের মধ্যে রয়েছে ফেসবুক।