শিক্ষা ৩০ নভেম্বর, ২০১৯ ১২:৫৮

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে তেলেসমাতি!

ডেস্ক রিপোর্ট 

ভর্তি পরীক্ষায় অনুপস্থিত ছিলেন মো. সাজ্জাতুল ইসলাম নামের এক শিক্ষার্থী। তার পরেও মেধাতালিকায় তার অবস্থান ১২তম। এমন ঘটনাই ঘটেছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) বি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায়। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বলছে, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে মেধাতালিকায় স্থান পাওয়া এ শিক্ষার্থী সাক্ষাত্কারও দিতে আসেননি।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ৮ নভেম্বর কুবির কলা ও মানবিক, সামাজিক বিজ্ঞান ও আইন অনুষদ নিয়ে গঠিত বি ইউনিটে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীর প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরে প্রকাশিত ফলাফলে দেখা যায়, এতে ১২তম হয়েছেন ২০৬০৫০ রোলধারী ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী। সিট প্ল্যান অনুযায়ী তার সিট পড়েছিল কোটবাড়ির টিচার্স ট্রেনিং কলেজে। তবে ওই কেন্দ্রে বি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় ২০৬০৫০ রোলধারী শিক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিলেন। পরীক্ষা হলের উপস্থিতির তালিকায় তার স্বাক্ষরও নেই। এ তালিকায় তার নাম দেয়া আছে মো. সাজ্জাতুল ইসলাম।

এ বিষয়ে কুবির বি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সদস্য সচিব ড. মো. শামীমুল ইসলাম বলেন, ভর্তি পরীক্ষায় ওই কেন্দ্রে কোনো শিক্ষার্থী ভুলবশত অথবা জালিয়াতির উদ্দেশ্যে উত্তরপত্রে অনুপস্থিত শিক্ষার্থীর রোল লিখেছে, যা কেন্দ্রে দায়িত্বরত শিক্ষকদের অবহেলার কারণে ঘটতে পারে। বিষয়টি আমাদের নজরে আসার পর সাক্ষাত্কারের দিন তাকে আটক করার সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু সে সাক্ষাতকার দিতেও আসেনি।

তিনি আরো বলেন, এখানে ভর্তি পরীক্ষা কমিটির কোনো দায় থাকতে পারে না। আমরা নিরাপত্তার স্বার্থেই বিষয়টি কমিটির সদস্যদের মধ্যে গোপন রেখেছি।

বি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মাসুদা কামাল বলেন, আমরা অনুপস্থিত শিক্ষার্থীর রোল নম্বর ফল প্রকাশের পরে জানতে পেরেছি। ইউনিটের সদস্যদের নিয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে তার বিষয়টি খতিয়ে দেখি এবং সাক্ষাত্কারের সময় অনুপস্থিত থাকায় তাকে আমরা ধরতে ব্যর্থ হই।

এ বিষয়ে কুবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরী বলেন, অনুপস্থিত শিক্ষার্থীর নাম মেধাতালিকায় চলে আসার বিষয়টি জানতে পেরেছি। সংশ্লিষ্ট ইউনিটের পরীক্ষা কমিটির সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া হবে।